ডিসি জেনারেটর ওয়াইন্ডিং | ডিসি জেনারেটর কাকে বলে?

0
54
ডিসি জেনারেটর ওয়াইন্ডিং

প্রিয় পাঠক ইলেক্ট্রিসিটি বিডি এর পক্ষ থেকে আপনাদের সবাইকে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও স্বাগতম। আজকে আমরা ডিসি জেনারেটর এর ওয়াইন্ডিং সম্পর্কে আলোচনা করবো। ডিসি জেনারেটরে প্রধানত দুইভাবে ওয়াইন্ডিং করা হয় ল্যাপ ওয়াইন্ডিং ও Wave ওয়াইন্ডিং। আজকে এই ল্যাপ ওয়াইন্ডিং ও ওয়েভ Windings সম্পর্কে বিস্তারিত জানবো।

ল্যাপ ওয়াইন্ডিং

উচ্চ কারেন্ট হার এবং নিম্ন ভোল্টেজের মেশিনের জন্যে এই ধরনের ওয়াইন্ডিং অত্যন্ত উপযোগী। এই ওয়াইন্ডিংকে প্যারালাল ওয়াইন্ডিং বা মাল্টিপল সার্কিট ওয়াইন্ডিং বলে। যেহেতু এই ধরনের ওয়াইন্ডিং-এ আনুভূমিক কয়েলের পার্শ্ব পরস্পরের উপর চেপে থাকে বিধায় এই ওয়াইন্ডিংকে ল্যাপ ওয়াইন্ডিং বলে। ল্যাপ ওয়াইন্ডিং এর প্রত্যেক কয়েলের দু প্রান্ত কম্যুটেটরের পাশাপাশি সেগমেন্টে সংযোগ করা হয়।

আরো জানুন>>ডিসি জেনারেটর এক্সাইটেশন

কয়েল পিচ এমন হতে হবে যাতে কয়েলের দু দিকের দুটি কন্ডাকটর পাশাপাশি দুটি ভিন্ন পোলের চৌম্বক ক্ষেত্রে থাকে। এই ওয়াইন্ডিং এ প্রতি কন্ডাকটরকে একবারই ব্যবহার করা যায় এবং ওয়াইন্ডিং এর এক প্রান্ত হতে আর এক প্রান্ত সংহত থাকতে হবে।

ল্যাপ ওয়াইন্ডিং এর ক্ষেত্রে নিম্নলিখিত শর্তগুলো অবশ্যই বিবেচনা করতে হবেঃ

  1. প্রতিটি কয়েলের দুই বাহুর মধ্যে দূরত্ব এমন হওয়া চাই যাতে একই কয়েলের দুই পরিবাহীকে পাশাপাশি অবস্থিত দুই পরিবাহীকে পাশাপাশি অবস্থিত দুই বিপরীত মেরুর অধীনে রাখা যেতে পারে।
  2. ওয়াইন্ডিংয়ে প্রতিটি পরিবাহীর সংযোগ অবশ্যই একবার এবং কেবলমাত্র একবার করেই হবে।
  3. ওয়াইন্ডিং যেখান থেকে সুরু হবে অবশ্যই সেখানে এসে শেষ হবে।
  4. Yb এবং Yf, পোল নিচের প্রায় সমান হওয়া উচিত।
  5. Yb এবং Yf, সর্বদাই বিজোড় সংখ্যা হওয়া উচিত।
  6. Yb এবং Yf এর পার্থক্য Yb=Yf+Zm সমীকরণটিকে পূর্ণ করতে হবে।
  7. যদি Yb, Yf-এর চেয়ে বড় হয়, তবে ওয়াইন্ডিং হবে প্রগ্রেসিভ ওয়াইন্ডিং।
  8. যদি Yb, Yf এর চেয়ে ছোট হয়, তবে ওয়াইন্ডিং হবে রিট্রোগ্রেসিভ।
  9. সিঙ্গেল টার্ন কয়েলে কম্যুটেটর সেগমেন্ট এর সংখ্যা কয়েলের সংখ্যার সমান অথবা কন্ডাকটর সংখ্যার অর্ধেকের সমান হওয়া উচিত।
  10. ল্যাপ ওয়াইন্ডিং এ প্যারালেল পথের সংখ্যা পোলের সংখ্যার সমান হতে হবে।
  11. মোট আবিষ্ট ভোল্টেজ প্রতি কন্ডাকটরে আবিষ্ট ভোল্টেজকে প্রতি প্যারালাল পথের কন্ডাক্টরের সংখ্যা দ্বারা গুণ করলে যা হবে, এর সমান হবে।
  12. মেশিনের মোট কারেন্ট, একটি কন্ডাক্টরে বা একটি প্যারালেল পথে প্রবাহিত কারেন্টেকে প্যারালেল পথের সংখ্যা দ্বারা গুণ করলে যা হবে, উহার সমান হবে।

ওয়েভ ওয়াইন্ডিং

ওয়েভ ওয়াইন্ডিং এ পর পর কয়েল গুলো তরঙ্গাকারে অগ্রসর হয় এবং সমগ্র আর্মেচারকে পুরোপুরি বেড় দিয়ে পুনরায় যাত্রা স্থানে ফিরে আসে। এতে মাত্র দুটি সমান্তরাল পথের সৃষ্টি হয়। এই ওয়াইন্ডিং এ কয়েলের মোট সংখ্যা বিজোড় হতেই হবে। এর জন্যে অনেক সময় কিছু কন্ডাক্টরকে বাদ দিতে বা যোগ করতে হবে।

ওয়েভ ওয়াইন্ডিং এর ক্ষেত্রে নিম্নলিখিত শর্ত গুলো অবশ্যই মেনে চলতে হবেঃ

  1. Yb এবং Yf পোল পিচের প্রায় সমান হতে হবে।
  2. এই ধরনের ওয়াইন্ডিং এ উভয় পিচ পরস্পর সমান অথবা দু-এর পার্থক্য হতে পারে।
  3. Yb ও Yf সব সময় বিজোড় সংখ্যা হতে হবে।
  4. ডুপ্লেক্স ওয়েভ ওয়াইন্ডিং এর বেলায় পৃথক ওয়াইন্ডিং এর জন্যে কম্যুটেটর সেগমেন্ট, কয়েলের সংখ্যা এবং কম্যুটেটর পিচ জোড়া সংখ্যা হওয়া উচিত।
  5. কম্যুটেটর সেগমেন্টের সংখ্যা, কয়েলের সংখ্যার সমান অথবা সিঙ্গেল টার্ন কয়েলের সময় কন্ডাক্টরের সংখ্যার অর্ধেকের সমান হওয়া উচিত।
  6. ওয়েভ ওয়াইন্ডিং এ প্যারালাল পথের সংখ্যা দু এর সমান হবে। সুতরাং পোলের সংখ্যা যাই হোক না কেন, ব্রাশের সংখ্যা দুই হবে এবং কোন সময় এর চারে উন্নীত করা হয়।
  7. মোট আবিষ্ট ভোল্টেজ, E প্রতি কন্ডাক্টরে আবিষ্ট ভোল্টেজকে প্রতি প্যারালাল পথের কন্ডাক্টরের সংখ্যা দ্বারা গুণ করলে যা হবে, উহার সমান হবে।
  8. মেশিনের মোট কারেন্ট, একটি কন্ডাক্টরে অথবা একটি প্যারালাল পথে প্রবাহিত কারেন্টের দ্বিগুণ হবে।

মূলত এভাবেই ডিসি জেনারেটর ওয়াইন্ডিং করা হয়।

ল্যাপ ওয়াইন্ডিং এবং ওয়েভ ওয়াইন্ডিং এর মাঝে পার্থক্য
ল্যাপ ওয়াইন্ডিং
  1. যে ওয়াইন্ডিং এ কয়েলগুলো আর্মেচারের পিছনে জড়িয়ে যায় তাকে ল্যাপ ওয়াইন্ডিং বলে।
  2. ব্রাশ সংখ্যা পোল সংখ্যার সমান।
  3. ব্যাক পিচ এবং ফ্রন্ট পিচ কখনও সমান হয় না।
  4. সিম্প্লেক্স ল্যাপ ওয়াইন্ডিং এ আর্মেচার প্যারালাল পথের সংখ্যা, পোল সংখ্যার সমান।
  5. বেশি কারেন্ট এবং কম ভোল্টেজের জন্য ল্যাপ ওয়াইন্ডিং তবে ব্যবহৃত হয়।
  6. প্যারালাল পথের ভোল্টেজ সমতার জন্য ল্যাপ ওয়াইন্ডিং এর ক্ষেত্রে ইকুইলাইজার রিং ব্যবহৃত করতে হবে।
ওয়েভ ওয়াইন্ডিং
  1. যে ওয়াইন্ডিং এ কয়েল গুলো শুধুমাত্র সামনের দিকে তরঙ্গাকারে অগ্রসর হয় তাকে ওয়েভ Winding বলে।
  2. ব্রাশ সংখ্যা পোল সংখ্যার সমান হতে পারে, আবার দুটি আলাদা হতে পারে।
  3. ব্যাক পিচ এবং ফ্রন্ট পিচ সমান হতে পারে।
  4. সিম্প্লেক্স পথের সংখ্যা সর্বদা ২।
  5. বেশি ভোল্টেজ কম কারেন্টের জন্য Wave ওয়াইন্ডিং ব্যবহৃত হয়।
  6. ইকুইলাইজার রিং এর প্রয়োজন হয় না।
Print Friendly, PDF & Email

মন্তব্য ত্যাগ করুন

আপনার মন্তব্য লিখুন।
দয়া করে, আপনার নাম এখানে লিখুন