তিন ফেজ অল্টারনেটরের তিনটি কয়েলের স্টার্ট প্রান্তগুলো তিনটি একসাথে একটি পয়েন্ট সংযুক্ত করে যে পয়েন্ট পাওয়া যায় তাকে নিউট্রাল পয়েন্ট বা স্টার পয়েন্ট বলে। কয়েল গুলোর শেষ প্রান্ত গুলো হতে তিনটি টার্মিনাল বের করা হয় যাদেরকে বহিঃস্থ সার্কিটের সাথে সংযোগ করা হয়, তিন ফেজ অল্টারনেটর এর এই ধরনের সংযোগকে স্টার বা ওয়াই সংযোগ বলে। সুতরাং “তিন ফেজ অল্টারনেটরের কয়েলের বা লোডের শেষ প্রান্ত তিনটি একত্রে সংযোগ করে শেষ স্টার্ট গুলো হতে তিনটি লাইন বের বহিঃস্থ সার্কিটের সাথে সংযুক্ত করার এই ব্যবস্থাপনাকে স্টার সংযোগ বলে।” আর স্টার সংযোগের কমন নিউট্রাল পয়েন্ট থেকে কোনো কন্ডাকটর বা লাইন বের করা হলে তাকে থ্রি-ফেজ, চার তার স্টার সংযোগ বলে।

ধরা যাক একটি থ্রি-ফেজ অল্টারনেটর এর na, nb এবং nc তিনটি কয়েল। প্রত্যেকটির স্টার্ট এবং শেষ প্রান্ত উপরের চিত্রে দেখানো হয়েছে। ফিনিশ প্রান্ত গুলো n পয়েন্টে সংযোগ করে স্টার্ট প্রান্ত হতে তিনটি লাইন বহিঃস্থ সার্কিটের সাথে সংযোগ করার জন্য বের করা হয়েছে। নিউট্রাল পয়েন্ট “n” হতে কোনো লাইন বা কন্ডাকটর বের করা হয়নি। সুতরাং উপরের চিত্রটি একটি থ্রি-ফেজ, তিন তার স্টার সংযোগ পদ্ধতির চিত্র। উক্ত তিন ফেজ, তিন তার পদ্ধতির ফেজ ভোল্টেজ গুলো Ena, Enb, Enc এবং abc ফেজ সিকুয়েন্সের জন্য লাইন ভোল্টেজ গুলো Eab, Ebc এবং Eca.

তিন ফেজ, তিন-তার স্টার সংযুক্ত পাওয়ার সিস্টেমের ফেজ ও লাইন ভোল্টেজ এবং ফেজ ও লাইন কারেন্টের মধ্যে সম্পর্ক 

থ্রি ফেজ তিন তার

তিন ফেজ সিস্টেমের যে কোনো কয়েল বা ফেজ বা লোডের আড়া আড়ি ভোল্টেজকে ফেজ ভোল্টেজ বলে। আর যেকোনো দুটি লাইনের মধ্যকার ভোল্টেজ কে লাইন ভোল্টেজ বলে। উপরের চিত্রে অল্টারনেটরের ফেজ ভোল্টেজ গুলো Ena, Enb, Enc এবং abc ফেজ সিকুয়েন্স অনুসারে লাইন ভোল্টেজ গুলো Eab, Ebc, Eba. আবার ফেজ সিকুয়েন্স যদি acb হয় তাহলে লাইন ভোল্টেজ গুলো হবে Eac, Ecd এবং Eba. উপরের সার্কিট ডায়াগ্রাম অনুসারে abc ফেজ সিকুয়েন্স এর জন্য

Eab=Enb-Ena = Enb+Ean…………………….(1)

Ebc=Enc – Enb = Enc + Ebn………………….(2)

Eca=Ena – Enc = Ena + Ecn………………….(3)

এবং acb ফেজ সিকুয়েন্স অনুসারে

Eac=Enc – Ena = Ean + Enc…………………(4)

Ecd=Enb – Enc = Ecn + Enb………………….(5)

Eba=Ena – Enb = Ebn + Ena…………………(6)

উপরের সার্কিট হতে দেখা যায় যে, যেকোনো দুটি লাইনের মধ্যকার ভোল্টেজ বা লাইন ভোল্টেজ হলো দুটি ফেজ ভোল্টেজের ভেক্টর বিয়োগফল। সুতরাং থ্রি-ফেজ, তিন-তার স্টার সংযুক্ত সিস্টেমে লাইন ভোল্টেজ এবং ফেজ ভোল্টেজ সমান নয়। উদাহরণস্বরূপ, Eab হল Enb এবং Ena এর ভেক্টর বিয়োগফল। তিন ফেজ ব্যালান্স সিস্টেমে প্রত্যেকটি ফেজ ভোল্টেজ সমান বিধায় তিনটি লাইন ভোল্টেজ সমান হবে।

আবার উপরের চিত্র হতে দেখা যায় যে, ina, inb, inc হল অল্টারনেটরের ফেজ কারেন্ট। iaa’, ibb’ icc’ হলো aa’ bb’ এবং cc’ লাইনের লাইন কারেন্ট। এখানে যেহেতু লাইন এবং অল্টারনেটরের ফেজ সিরিজে সংযুক্ত, সেহেতু স্টার সংযোগ পদ্ধতির লাইন এবং ফেজ দিয়ে একই কারেন্ট প্রবাহিত হবে। সুতরাং থ্রি-ফেজ, ৩-তার স্টার সংযোগ পদ্ধতির লাইন কারেন্ট এবং ফেজ কারেন্ট সমান।

তিন ফেজ, তিন তার স্টার সংযোগ পদ্ধতির প্রয়োগ
  • থ্রি-ফেজ অল্টারনেটর স্টারে সংযোগ করলে ফেজ ভোল্টেজের তুলনায় লাইন ভোল্টেজ তিন গুণ হয়। বিধায় প্রতি কয়েল বা ফেজের টার্ন সংখ্যা কম হয়। ফলে মেশিনের আকার-আকৃতি ছোট হয় ও খরচ কম পড়ে।
  • ট্রান্সমিশন লাইনের প্রারম্ভে ব্যবহৃত থ্রি-ফেজ ট্রান্সফরমার এর প্রাইমারিতে স্টার সংযোগ ব্যবহার করা হয়।
  • ডিস্ট্রিবিউশন ট্রান্সফরমার এর সেকেন্ডারিতে থ্রি-ফেজ তিন তার স্টার সংযোগ ব্যবহার করা হয়।
  • অটোট্রান্সফরমার থ্রি-ফেজ স্টাটারের প্রাইমারিতে থ্রি-ফেজ, ৩-তার স্টার সংযোগ ব্যবহার করা হয়।
Facebook Comments