পাওয়ার প্লান্ট জব প্রশ্ন

প্রিয় পাঠক আজকের পর্ব ৩য় পাওয়ার প্লান্ট জব প্রশ্ন ও উত্তর সম্পর্কে লেখা আর্টিকেল। পাওয়ার প্লান্ট সম্পর্কে আরো প্রশ্ন ও উত্তর পেতে আমাদের সাথেই থাকুন।

১। সার্জ ট্যাংক কী?

উত্তর : সাজ ট্যাংক এ ধরনের জামাকত আধার যা টারবাইনের কাছে পেনস্টোকের সাথে লাগানাে থাকে।

২। টেইল রেস কী?

উত্তর : পানি বিদ্যুৎ কেন্দ্রে ব্যবহৃত টেইল রেস একটি প্যাসেঞ্জা পথ যার মাধ্যমে ডিসচার্জকৃত পানি টারবাইন হয়ে নদীতে যায়।

৩। ক্যাচমেন্ট এলাকা কাকে বলে?

উত্তর : পানি বিদ্যুৎ প্রকল্প বাঁধের [Dam) পিছনে যে সম্পূর্ণ এলাকায় পানি জমা করে রাখা হয়, তাকে ক্যাচমেন্ট এলাকা বলে।

৪। সার্জ ট্যাংক কী?

উত্তর : সার্জ ট্যাংক একধরনের জমাকৃত আধার যা টারবাইনের কাছে পেনস্টোকের সাথে লাগানাে থাকে।

৫। টেইল রেস কী?

উত্তর : পানি বিদ্যুৎ কেন্দ্রে ব্যবহৃত টেইল রেস একটি প্যাসেজ পথ যার মাধ্যমে ডিসচার্জকৃত পানি টারবাইন হয়ে নদীতে যায়।

৬। গভর্নরের কাজ কী?

উত্তর : বৈদ্যুতিক লােড অনুযায়ী টারবাইনের স্পিড নিয়ন্ত্রণ করাই হচ্ছে গভর্নরের কাজ।

৭। স্পিল ওয়ে (Spill-way) কাকে বলে?

উত্তর : বন্যা মওসুমে বাঁধ (Dam) কে রক্ষার জন্য অতিরিক্ত পানিকে ডিসচার্জ যার মাধ্যমে করা হয় তাকে ওয়ে বলে।

৮। পেনস্টোক কী?

উত্তর : পেনস্টোক বলতে আমরা স্বল্প দৈর্ঘ্যের পাইপ বুঝি যা প্রধান ওয়াটার ওয়ের সাথে প্রাইম মুভারের সঙ্গে সংযােগ থাকে।

৯। জল বিদ্যুৎ প্রকল্পে পেনস্টোক কেন ব্যবহার করা হয়?

উত্তর : পেনস্টোক হলাে স্বল্প দৈর্ঘ্যের পাইপলাইন, যার মাধ্যমে বাঁধের গেট হতে উচ্চচাপ বিশিষ্ট পানির প্রবাহ টারবাইনে ব্লেড বা ভেনে গিয়ে আঘাত করে।

১০। হাই-হেড পানি বিদ্যুৎ কেন্দ্র কী ধরনের টারবাইন ব্যবহৃত হয়?

উত্তর : এই ধরনের কেন্দ্রে সাধারণত পেলটন টারবাইন ব্যবহৃত হয়।

১১। ট্রাস র্যাক (Trash rack) কী?

উত্তর : এটা পানি বিদ্যুৎ প্রকল্পের একটি উপাদান যা বাঁধ ও ফোর-বে থেকে ভাসমান ও নিমজ্জিত আবর্জনা ইনটেকে প্রবেশে বাধা দেয়।

১২। ফোর-বে কাকে বলে?

উত্তর : জল বিদ্যুৎ প্ল্যান্টে পেনস্টকের প্রারম্ভে ফোর-বে থাকে, যা পানির রিজার্ভার হিসাবে কাজ করে।

১৩। বেস লােড প্লান্ট কাকে বলে?

উত্তর : এ ধরনের প্লান্ট সারা বছর অধিক এবং সমহারে বিদ্যুৎ শক্তি উৎপন্ন এবং সরবরাহ করে যার ফলে মূল বৈদ্যুতিক লােড বহন করা সম্ভব। এ জন্য এ ধরনের প্ল্যান্টকে বেস লােড প্ল্যান্ট বলে।

১৪। জল-বিদ্যুৎ প্রকল্পের সার্জ ট্যাঙ্কের কাজ কী?

উত্তর : এটির কাজ হচ্ছে অল্টারনেটরের বােঝা কমে যাওয়ার সাথে সাথে এর প্রবাহ দ্বার আংশিক বন্ধ হয়ে যায়। তখন সার্জ ট্যাঙ্ক লাইনের পানি সাময়িকভাবে ধারণ করে রাখে। আবার হঠাৎ অল্টারনেটরের বােঝা বেড়ে যাওয়ার সাথে সাথে, তৎক্ষণাৎ এটির আধারে সঞ্চিত বাড়তি পানি সরবরাহ করে অল্টারনেটরের ঘূর্ণন গঠন ও বােঝা বহন অবস্থা নিয়ন্ত্রণ করে।

১৫। পানি বিদ্যুৎ কেন্দ্র কাকে বলে?

উত্তর : যে বিদ্যুৎ কেন্দ্রে পানির প্রবাহকে টারবাইন ঘুরানাের কাজে লাগিয়ে ঐ টারবাইন শ্যাফটের সাথে কাপলিং করা বৈদ্যুতিক জেনারেটরকে ঘুরানাের মাধমে যে বিদ্যুৎ উৎপাদন করা হয় তাকে পানি বিদ্যুৎ কেন্দ্র বলে।

১৬। বাঁধ (Dam) নির্বাচনে কী কী বিষয় বিবেচনা করতে হয়? অথবা, পানি বিদ্যুৎ প্রকল্পের স্থান নির্বাচনে বিবেচ্য ফ্যাক্টরগুলাে লেখ।

উত্তর : বাঁধ নির্বাচনে যে সকল বিষয় বিবেচনা করতে হয় সেগুলাে হল : (ক) অর্থনৈতিক সাশ্রয় (খ) ট্রপােগ্রাফিক্যাল অবস্থা (গ) জিয়ােলজিক্যাল অবস্থান (ঘ) মালামালের সহজ লভ্যতা। (ঙ) শ্রমিক খরচ ইত্যাদি।

১৭। স্পিল-ওয়ের কাজ কী?

উত্তর : নিম্নে স্পিল ওয়ের কাজ লেখা হলাে :
(ক) বাঁধের কোন কিছু ক্ষয়ক্ষতি ব্যাতিরকে অতিরিক্ত পানি ডিসচার্জ করার ক্ষমতা অবশ্যই থাকতে হবে। (খ) বাধে পূর্ব নির্ধারিত সর্বোচ্চ পানির উচ্চতা রক্ষার দায়িত্ব বহন করতে হবে।

১৮। পানি বিদ্যুৎ কেন্দ্রে স্পিল-ওয়ে এর প্রয়ােজনীয়তা লেখ।

উত্তর : বন্যা মওসুমে অতিরিক্ত পানি ডিসচার্জের মাধ্যমে বাধাকে রক্ষা করার জন্য স্পিল-ওয়ের প্রয়ােজনীয়তা অপরিসীম। স্পিল-ওয়ে বাঁধের জন্য সেফটি ভালভ হিসেবে কাজ করে। এ ছাড়া বাধে পূর্বনির্ধারিত সর্বোচ্চ পানির উচ্চতা রক্ষার দায়িত্বও একে বহন করতে হয়।

১৯। হাইড্রো-ইলেকট্রিক প্ল্যান্টে গভর্নরের কাজ উল্লেক কর।

উত্তর : লােডের অবস্থা অনুযায়ী স্পীড রেগুলেশন আনয়ন করাই হলাে-গভর্নরের কাজ। রিয়্যাকশন টারবাইনের ক্ষেত্রে গাইড ভেনকে স্বয়ংক্রিয়ভাবে পরিবর্তন করে টারবাইন পানি প্ররাহের নিয়ন্ত্রণের এই রেগুলেশন আনয়ন করা হয়। পেলটন টারবাইনের ক্ষেত্রে লজ নিডল এ্যাডজাস্ট করে করা হয়।

২০। সার্জ ট্যাংক স্থাপনের উদ্দেশ্য কী?

উত্তর : সার্জ ট্যাংক স্থাপনের উদ্দেশ্য হল-
(ক) এটা টারবাইন এবং মুক্ত পানির তলের মধ্যে দূরত্ব কমিয়ে পেনস্টোকে ওয়াটার হ্যামারিং ইফেক্ট কমায় ।
(খ) টানেলে প্রবাহমান উচ্চ পানির চাপকে প্রতিহত করে থাকে।

২১। পানিবিদ্যুৎ প্রকল্পের বিভিন্ন অংশগুলাের নাম লেখ।

উত্তর : পানি বিদ্যুৎ প্রকল্পের বিভিন্ন অংশের নামসমূহ হলাে :

১। রিজার্ভার,
২। বাঁধা,
৩। সার্জ ট্যাংক,
৪। ফোর-বে,
৫। ভাল্ভ হাউজ,
৬। পেনস্টোক,
৭। পাওয়ার হাউজ ইত্যাদি।

২২। নিউক্লিয়ার ফিশন বলতে কী বােঝায়?

উত্তর : নিউক্লিয় ফিশন হল একটি নিউক্লিয়ার বিক্রিয়া যেখানে পারমাণবিক নিউক্লিয়ারের ভাঙন ঘটে এবং তা ক্ষুদ্রাতিক্ষুদ্র অংশে বিভক্ত হয়।

২৩। মডারেটর কেন ব্যবহার করা হয়?
অথবা, নিউক্লিয়ার পাওয়ার প্লান্টে মডারেটরের কাজ কী?

উত্তর : এটি রিয়্যাক্টরের এমন একটি উপাদান যার সাহায্যে অতি দ্রুত গতি সম্পন্ন ডিট্রোনকে মগতি সম্পন্ন নিউট্রোনে পরিণত করে শৃঙ্খল বিক্রিয়ায় পরমাণু ভগ্নকরণ পদ্ধতিকে ত্বরান্বিত করে, একই সঙ্গে নিউট্রোনকে শােষণ করে।।

২৪। এক কেজি ইউরেনিয়াম-235 থেকে উৎপন্ন শক্তি কী পরিমাণ কয়লা ও তেলের সমতুল্য হয়?

উত্তর : মােটামুটিভাবে 4500 টন উন্নতমানের কয়লা অথবা 1700 টন তেলের খরচের উৎপাদিত শক্তির সমতুল্য।

২৫। সােডিয়াম গ্রাফাইট রিয়্যাক্টরে শীতলক হিসেবে কী ব্যবহার করা হয়?

উত্তর : এখানে শীতলক হিসেবে হাল্কা পানি ব্যবহার করা হয়।

২৬। চেইন রিয়্যাকশন কী?

উত্তর : চেইন প্রক্রিয়ায় উৎপন্ন নিউট্রন খুব দ্রুতগতি সম্পন্ন হয়ে থাকে এবং ব্যবস্থাধীনে এরা যখন অন্যান্য U235 এর নিউক্লিয়াসে অনুরূপভাবে বিভাজন (Fussion) ক্রিয়া করে তখন চেইন রিয়্যাকশনের সৃষ্টি হয়।

২৭। মডারেটর কী?

উত্তর : মডারেটর এমন একটি পদার্থ যার সহায়তায় নিউট্রনের বেগ দ্রুত কমিয়ে আনা সম্ভব হয়।

২৮। আইসােটোপ কাকে বলে?

উত্তর : যেসব পরমাণুর প্রােটন সংখ্যা সমান কিন্তু ভর সংখ) ভিন্ন হয় সেসব পরমাণুকে পরস্পরের আইসােটোপ বলে । যেমন- হাইড্রোজেনের তিনটি আইসােটোপ হলাে : H = প্রােটিয়াম, H = ডিউটেরিয়াম, H = ট্রিটিয়াম!

২৯। আপেক্ষিক গতি বলতে কী বােঝায়?

উত্তর : দুটি গতিশীল বস্তুর একটির স্বপেক্ষে অপরটির সরণের হারকে আপেক্ষিক গতি বলে।

৩০। কুলেন্ট কাকে বলে? অথবা, শীতলক (Coolant) কাকে বলে?

উত্তর : ইহা একটি পরিবহন ব্যবস্থা। এর সাহায্যে পারমাণবিক চুল্লি হতে তাপকে বাইরে বের করে আনার মাধ্যমে চুল্লির আভ্যন্তরীণ তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণ করা হয় এবং উক্ত তাপকে কাজে লাগিয়ে বাষ্প তৈরি করা হয়।

৩১। নিউক্লিয়ার পাওয়ার প্লান্টের নিয়ন্ত্রক দণ্ড (Control Rod) কীসের তৈরি?

উত্তর :নিউক্লিয়ার পাওয়ার প্লান্টের নিয়ন্ত্রক দণ্ড (Control Rod) তৈরি হয় ক্যাডমিয়াম দিয়ে।

৩২। নিউক্লিয়ার রিয়্যাক্টরে কুল্যান্ট ব্যবহৃত হয় কেন?

উত্তর : তাপ বিনিময় যন্ত্রে ব্যবহৃত তরল পদার্থকে তাপ প্রদান করাই শীতলকের কাঙা। এটি পারমাণবিক চুল্লি হতে তাপশক্তি প্রদান করাই শীতলকের কাজ। এটি পারমাণবিক চুল্লি হতে তাপশক্তি বহন করে চুলিকে ঠাণ্ডা রাখে শীতলকের বা কুল্যান্টের এ তাপশক্তি দ্বারাই বয়লারের পানিকে বাষ্পে পরিণত করা হয়।

৩৩। নিউক্লিয়ার রিয়্যাকটার নিয়ন্ত্রক দণ্ডগুলাের কাজ কী?

উত্তর : নিচে নিয়ন্ত্রক দণ্ডগুলাের কাজ দেওয়া হলাে : (ক) শক্তিশালী নিউটন শােষক হিসেবে কাজ করে।
(খ) নিউক্লিয়ার চুল্লিতে নামিয়ে উঠিয়ে বিক্রিয়ার জার নিয়ন্ত্রণ করে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here